Ad Code

ফেসবুক থেকে আয়।

 বর্তমান সময়ে সারাবিশ্বে ফেসবুক একটি জনপ্রিয় নাম। ফেসবুক সোশ্যাল নেটওয়ার্কটিতে সারা বিশ্বে প্রায় ২.৫ বিলিয়ন অর্থাৎ ২৫০ কোটি ইউজার একটিভ রয়েছে। এই সংখ্যা প্রতিনিয়ত বাড়ছে।

 

ফেসবুক থেকে আয়।

যেহেতু এই ফেসবুকে,  আপনার চারপাশের বন্ধুসহ পরিচিত-অপরিচিত সকলেই একটিভ রয়েছে, সুতরাং এর মাধ্যমে আপনি সহজেই আয় করতে পারবেন। ফেসুবক থেকে আপনি সরাসরি আয় করতে পারবেন অথবা এটি ব্যবহার করে অন্য উপায়েও আয় করতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ

ফেসবুক থেকে আয় করার জন্য আপনার তেমন কিছু লাগবে না, শুধু একাউন্ট থাকতে হবে এবং কিছু কৌশল জানা থাকতে হবে। তাহলেই আপনি বিশ্বের বড় এই সোশ্যাল মিডিয়া থেকে আয় করতে পারবেন।


যেহেতু ফেসবুকের র‍্যাংক ও ইউজারের সংখ্যা প্রতিনিয়ত বাড়ছে এবং এখানে পরিমাণে আপনি টেক্সট, পিকচার, ভিডিও আপলোড করতে পারেন সুতরাং বিভিন্ন পদ্ধতি কাজে লাগিয়ে আপনি এখান থেকে আয় করতে পারবেন।



ফেসবুক থেকে কিভাবে আয় করবেন

এখানে আমি ফেসবুক থেকে আয় করার ০৮ টি কৌশল বর্ণনা করছি। আপনি ইচ্ছে করলে বুদ্ধি খাটিয়ে আরো কৌশল উদ্ভাবন করতে পারেন।


১. ফেসবুক মার্কেটিং

অর্থাৎ আপনি কোন প্রোডাক্টের মার্কেটিং করার জন্য ফেসবুক ব্যবহার করতে পারেন। আপনার যদি কোন একটি ফেসবুক পেজ অথবা গ্রুপ থাকে তাহলে সেই পেজ বা গ্রুপের সদস্যদের মাঝে কোন প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন প্রচার করতে পারেন এবং তাদের কাছে বিক্রি করতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ

২. ফেসবুকে এফিলিয়েট মার্কেটিং

এফিলিয়েট মার্কেটিং হচ্ছে কোন পণ্য বা কোম্পানির প্রচার ও পরিচিতি করা এবং তা জনগণের কাছে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করা। আপনি ফেসবুক পেজ বা গ্রুপকে কাজে লাগিয়ে এটি করতে পারেন। হাজার খানেক মার্চেন্ট হাউজ রয়েছে যারা তাদের পণ্যের প্রচার করতে চায়। যেমন : Amazon, Flipkart, VCommission ইত্যাদি। তাদের পণ্যের প্রচারের জন্য আপনাকে পেমেন্ট করবে।

এছাড়াও আপনি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করে প্রতিষ্ঠান বা পণ্যের প্রচার করে এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারেন। আপনার আশে-পাশেই বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান পাবেন যারা তাদের প্রতিষ্ঠানের অথবা পণ্যের প্রচারের জন্য আপনাকে বিজ্ঞাপন দেবে যার মাধ্যমে আপনি আয় করতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ

৩. ফেসবুক কনটেন্ট তৈরি করুন

ফেসবুক সব সময় তাদের ব্যবহারকারীদের ইউনিক দক্ষতা ও জ্ঞান বাড়ানোর জন্য কনটেন্ট তৈরি করার উৎসাহ দেয়। 22Social নামে একটি অ্যাপ রয়েছে যার মাধ্যমে এটি করতে পারেন। কনটেন্টগুলো সাধারণত PDF, অডিও বা ভিডিও আকারে বিক্রি হয়ে থাকে।

আরও পড়ুনঃ

এছাড়াও ফেসবুক সুন্দর সুন্দর কিছু অনলাইন টিউটোরিয়াল প্রচার করে থাকে। আপনি  22Social অ্যাপ বা সোশ্যাল মিডিয়া প্লার্টফরম  ব্যবহার করে অনলাইন টিউটোরিয়াল তৈরির মাধ্যমেও আয় করতে পারেন।

এ জন্য আপনার প্রয়োজন একটি ফেসবুক পেজ, একটি ফ্রি 22Social একাউন্ট, ভেরিফাইড PayPal একাউন্ট এবং ফ্রি বা পেইড অনলাইন হোস্টিং একাউন্ট যেমন : Dropbox, Vimeo, YouTube, Google Drive and SoundCloud ইত্যাদি।


৪. আয় করুন ফেসবুক বিজ্ঞাপন থেকে

ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দেয়ার মাধ্যমেও আপনি আয় করতে পারেন।  বিভিন্ন কর্পোরেট কোম্পানি ও ব্যক্তিগত ইউজারকে এ বিজ্ঞাপন সুবিধা দেয়ার ফলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ফেসবুক বেশ এগিয়ে রয়েছে। আপনি নির্দিষ্ট কোন বিজ্ঞাপন তৈরি করতে পারেন এবং ফেসবুকের মাধ্যমে কোন গ্রুপে বা ব্যক্তিগত পেজে ছড়িয়ে দিতে পারেন। আপনি নির্দিষ্ট বয়সের বা নির্দিষ্ট কোন এলাকার লোকদের মাঝে এটি শো করাতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ

যদি আপনার কোন ছোট বা বড় কোম্পানি থাকে তাহলে ফেসবুকের মাধ্যমে সেই কোম্পানি বিজ্ঞাপন প্রচার করতে পারেন। ফেসবুক আপনাকে নির্দিষ্ট কোন অফারের মাধ্যমে ফ্রি বিজ্ঞাপন প্যাকেজ দিয়ে থাকে। আপনি সেটি গ্রহণ করতে পারেন। অথবা তাদের পেইড ভার্সন রয়েছে সেটিও গ্রহুণ করতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ

৫.  ফেসবুককে কাজে লাগিয়ে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আয় করুন

আপনির যদি একটি ওয়েবসাইড থাকে এবং সেই ওয়েবসাইটে ভিজিটরের অভাবে পর্যাপ্ত ইনকাম না করতে পারেন তাহলে ফেসবুককে কাজে লাগান। যেমন- আপনি কিছু আর্টিকেল লিখেছেন কিন্তু ভিজিটর পাচ্ছেন না। তাহলে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দিন। তাহলে দেখবেন খুবই দ্রুত আপনার সাইটে ভিজিটর আসছে এবং সেই আর্টিকেলগুলো পড়ছে।

আর্টিকেলগুলো পড়ার পাশাপাশি আপনার  সাইটের হোম পেজে ভিজিট করছে এবং পছন্দ হলে অন্যান্য আর্টিকেলগুলোও পড়ছে। এছাড়া আপনার সাইটে যদি কোন বিজ্ঞাপন থাকে তাহলে সেই বিজ্ঞাপনগুলোতেও ক্লিক করছে।


৬. ফেসবুক গ্রুপ, পেজ বা পার্সোনাল একাউন্ট পরিচালনা

অনেক বড় বড় কোম্পানি রয়েছে যাদের ফেসবুক পেজ পরিচালনার জন্য লোক নিয়োগ করে থাকে। আপনি এ সুযোগটি কাজে লাগাতে পারেন। এর জন্য আপনাকে বেশি কিছু করতে হবে না শুধু ফেসবুক ও সেই কোম্পানি সম্পর্কে কিছু আইডিয়া রাখতে হবে।

এছাড়া অনেক বড় বড় ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান তাদের পার্সোনাল একাউন্ট বা গ্রুপ পরিচালনা করার জন্যও লোক নিয়োগ করে থাকে। এখান থেকেও আপনি আয় করতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ

৭. ফেসবুক গ্রুপ পরিচালনা করুন

ফেসবুকে রয়েছে সাধারণত দুই ধরনের গ্রুপ open ও close গ্রুপ। open গ্রুপে যে কেউ জয়েন্ট করতে পারেন আর close গ্রুপে অনুমোদন সাপেক্ষে জয়েন্ট করতে পারেন। আপনি একটি গ্রুপ খুলুন। সেই গ্রুপে আপনার বন্ধুসহ অন্যান্যদের ইনভাইট করুন। যখন আপনার গ্রুপে মেম্বারের সংখ্যা বেড়ে যাবে তখন দেখবেন আপনার চাহিদা অনেক বেড়ে গেছে।

আপনি যখন কোন পোস্ট করবেন তখন আপনার গ্রুপে যে মেম্বার রয়েছে তাদের ওয়ালে সেই পোস্ট চলে যাবে। ফলে আপনি এ পদ্ধতিটি কাজে লাগিয়ে আয় করতে পারেন।


৮. ফেসবুক পেজ বা গ্রুপ বিক্রি।


Post a Comment

0 Comments

Close Menu